মঙ্গলবার, মে ১৮, ২০২১

আল জাজিরার তথ্যচিত্র সরিয়ে নিতে হাইকোর্টের লিখিত নির্দেশনা পাইনি: ফেসবুক

  • আন্তর্জাতিক প্রতিবেদক
  • ২০২১-০২-২০ ২৩:০৯:৩০
image

উচ্চ আদালতের নির্দেশনার পর আল জাজিরায় প্রচারিত বাংলাদেশ বিষয়ক তথ্যচিত্রটির লিংক বন্ধ করার বিষয়টি পর্যালোচনার জন্য গ্রহণ করার কথা জানিয়েছে ফেসবুক। শনিবার সমকালকে এ কথা জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। 

তিনি বলেন, শনিবার বিকেলে একটি অনুষ্ঠান শেষে উপস্থিত কয়েকটি টেলিভিশন চ্যানেলের সাংবাদিককে 'ফেসবুক পর্যালোচনা করছে' কথাটিই জানিয়েছিলাম। কিন্তু কয়েকটি টিভি চ্যানেল 'পর্যালোচনা' শব্দটির পরিবর্তে 'সম্মতি' শব্দটি লিখেছে যা বিভ্রান্তির সৃস্টি করেছে।

এ দিকে শনিবার রাতে ফেসবুক এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, আল জাজিরায় প্রচারিত 'অল দ্যা প্রাইম মিনিস্টার'স মেন' তথ্যচিত্রটি সরিয়ে নিতে আমরা বিটিআরসি'র কাছ থেকে হাইকোর্টের লিখিত নির্দেশনা পাইনি। আমরা এ বিষয়ে কোনো বিবৃতি দেইনি।

ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, আল জাজিরায় এ ধরনের একটি তথ্যচিত্র প্রচার হতে পারে এমন খবর আগে থেকেই পাওয়া গিয়েছিল। এ কারণে তথ্যচিত্র প্রচারের পর সেটি ফেসবুক ও ইউটিউবে ভাইরাল হতে পারে এমন আশংকাও তৈরি হয়। সে কারণে তথ্যচিত্র প্রচারের আগেই ফেসবুক এবং ইউটিউব কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করে এটি যেন ভাইরাল না হয় সেজন্য আলোচনা করা হয়। জবাবে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ জানায়, আল জাজিরার যে কোন প্রতিবেদন সুনির্দিষ্ট প্রক্রিয়া ছাড়া সরানো সম্ভব নয়। যদি এ সংক্রান্ত আদালতের কোনো নির্দেশনা আসে তাহলে ফেসবুক সেটি বিবেচনা করবে। 

 

ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী বলেন, আদালতের নির্দেশনা পাওয়ার পর ফেসবুক এবং ইউটিউব কর্তৃপক্ষকে ই-মেইল বার্তার মাধ্যমে তা জানানো হয়। এ ছাড়া ফেসবুকের বাংলাদেশ বিষয়ক কর্মকর্তার সঙ্গেও ভাচুর্য়াল মাধ্যমে আলাপ হয়। এরপর ফেসবুক এবং ইউটিউব থেকে জানানো হয়, তারা আল জাজিরার এই তথ্যচিত্র সরানোর বিষয়টি তাদের রিভিউ প্যানেলে পর্যালোচনার জন্য পাঠিয়েছে।

মন্ত্রী জানান, তিনি শনিবার বিকেলে কয়েকটি টেলিভিশনের সাংবাদিককে এই পর্যালোচনা করার বিষয়টিই জানিয়েছিলেন। কোনো কিছু পর্যালোচনার জন্য গ্রহণ করার অর্থ সম্মতি জানানো নয়। বিষয়টি না বুঝে কিংবা খবরটি সংবেদনশীল করার জন্য টেলিভিশনে 'সম্মতি' শব্দ প্রচার করা হয়েছে। এটি কোনোভাবেই সঠিক হয়নি।

উৎসঃ সমকাল


এ জাতীয় আরো খবর