উত্তরে আতিক, দক্ষিণে তাপস

  • Abashan
  • ২০২০-০২-০২ ১১:১৮:১৫
image

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের আনিসুল হকের মৃত্যুর পর অনুষ্ঠিত উপ-নির্বাচনে জয় পেয়ে অল্প সময়ের জন্য দায়িত্ব পেয়েছিলেন পোশাকশিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর সাবে সভাপতি আতিকুল ইসলাম। দ্বিতীয়বার আওয়ামী লীগের প্রার্থী হয়ে আগামী পাঁচবছরের জন্য মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। অন্যদিকে ঢাকা দক্ষিণে মেয়রপদে জয় পেয়েছেন  টানা তিনবার ঢাকা ১২ আসন থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য বঙ্গবন্ধুর ভাগনে শেখ ফজলুল হক মনির পুত্র ব্যরিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস।

 

গতকাল শনিবার (১ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে বিকেল ৪টায় শেষ হয়। এরপর রাত সাড়ে ১১টার দিকে ঢাকা দক্ষিণের রিটার্নিং কর্মকর্তা আব্দুল বাতেন শিল্পকলা একাডেমি থেকে এবং রাত আড়াইটার পর ঢাকা উত্তরের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আবুল কাসেম শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় অডিটরিয়াম থেকে পৃথকভাবে এ ফলাফল ঘোষণা করেন।

 

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের নৌকা প্রতীক নিয়ে মো. আতিকুল ইসলাম পেয়েছেন ৪ লাখ ৪৭ হাজার ২১১ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী তাবিথ আউয়াল ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ২ লাখ ৬৪ হাজার ১৬১ ভোট। এছাড়াও হাতপাখা প্রতীকে ইসলামী আন্দোলনের শেখ ফজলে বারী মাসউদ পেয়েছেন ২৮ হাজার ২০০ ভোট, কাস্তে প্রতীকে কমিউনিস্ট প্রার্থী আহম্মেদ সাজেদুল হক রুবেল পেয়েছেন ১৫ হাজার ১২২ ভোট, আম প্রতীকে আনিসুর রহমান দেওয়ান পেয়েছেন ৩ হাজার ৮৫৩ ভোট এবং বাঘ প্রতীকে শাহীন খান পেয়েছেন ২ হাজার ১১১ ভোট।

 

৫৪টি ওয়ার্ডে এবং ১৮টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডে মোট ভোটার ছিল ৩০ লাখ ১২ হাজার ৫০৯ জন। তবে এক তৃতীয়াংশ মানুষই ভোট দেয়া থেকে বিরত থেকেছেন। ভোট কাস্ট হয়েছে মাত্র ২৫ দশমিক ৩০ শতাংশ।

 

অন্যদিকে ঢাকা দক্ষিণে নৌকার প্রার্থী শেখ ফজলে নূর তাপস পেয়েছেন ৪ লাখ ২৪ হাজার ৫৯৫ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ইশরাক হোসেন ধানের শীষ প্রতীকে পেয়েছেন ২ লাখ ৩৬ হাজার ৫১২ ভোট। এখানে মোট ভোটার ২৪ লাখ ৫৩ হাজার ১৯৪ জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ১২ লাখ ৯৩ হাজার ৪৪১ এবং নারী ভোটার ছিলেন ১১ লাখ ৫৯ হাজার ৭৫৩ জন। ওয়ার্ড সংখ্যা ৭৫, সংরক্ষিত ওয়ার্ড ২৫টি। 

 

২০১৫ সালে অনুষ্ঠিত ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোট পড়েছিল ৪৮ দশমিক ৫৭ শতাংশ। এবার সেই হার কমেছে আরো। নির্বাচন কমিশনের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, মাত্র ২৯ দশমিক ০০২ শতাংশ ভোট কাস্টিং হয়েছে।

 

এই দুই প্রার্থী ছাড়াও ঢাকা দক্ষিণের অন্য মেয়র প্রার্থীদের মধ্যে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী আবদুর রহমান হাতপাখা প্রতীকে পেয়েছেন ২৬ হাজার ৫২৫ ভোট। জাতীয় পার্টির প্রার্থী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন লাঙল প্রতীকে পেয়েছেন ৫ হাজার ৫৯৩ ভোট। গণফ্রন্টের প্রার্থী আবদুস সামাদ সুজন মাছ প্রতীকে পেয়েছেন ১২ হাজার ৬৮৭ ভোট। এছাড়া বাংলাদেশ কংগ্রেসের মো. আক্তারুজ্জামান ওরফে আয়াতুল্লাহ ডাব প্রতীকে ২ হাজার ৪২১ ও আম প্রতীকে এনপিপির মো. বাহারানে সুলতান বাহার ৩ হাজার ১৫৫ ভোট পেয়েছেন।