বুধবার, জুলাই ৮, ২০২০

নিরাপদ ভ্রমণের টিপস

  • Abashan
  • ২০২০-০৩-১৪ ১০:৪৪:৩২
image

ভ্রমণ মানেই অচেনা-অজানা গন্তব্যের পানে ছুটে চলা। যেকোনো গন্তব্যে ভ্রমণ করা ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে, এটা যতই নিরাপদ বলে মনে করা হোক না কেন। অনেক নিরাপদ গন্তব্যেও দুর্ঘটনাবশত বা অসতর্কতার কারণে কোনো অঘটন ঘটতে পারে। তাই যেকোনো গন্তব্যের ক্ষেত্রে সতর্কতা ও সাবধানতা অবলম্বন করা বুদ্ধিমানের কাজ।

 

ভ্রমণের আগে আপনার পরিবারের সদস্য, কাছের সহকর্মী ও বন্ধুবান্ধবদের অবহিত করতে ভুলবেন না। ভ্রমণ গন্তব্য, কতদিন থাকবেন, যোগাযোগের মাধ্যম কী হবে ইত্যাদি বিষয় তাদের সঙ্গে শেয়ার করে নিন। তাহলে যেকোনো পরিস্থিতিতে বা আপনি কোনো সমস্যায় পড়লে তারা দ্রুত যোগাযোগ করতে এবং ব্যবস্থা নিতে পারবেন। এছাড়া যোগাযোগের জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো আপনাকে সহায়তা করতে পারে।

 

প্রযুক্তি দুর্দান্তভাবে আমাদের সহযোগিতা করতে পারে, যখন এটা কাজ করে। কিন্তু ভ্রমণে এমন কিছু জায়গা থাকে, যেখানে প্রযুক্তি ব্যর্থ হতে পারে এবং আপনি যোগাযোগের বাইরে থাকতে পারেন। আবার আপনার ফোন, ল্যাপটপ চুরি বা হারিয়ে যেতে পারে। সেক্ষেত্রে আপনি কারো সঙ্গে যোগাযোগের জন্য নম্বর নাও খুঁজে পেতে পারেন। তাই ভ্রমণের আগে কাছের মানুষদের কয়েকটা নম্বর কাগজে লিখে সঙ্গে রাখুন। বাড়ির যোগাযোগের নম্বরের পাশাপাশি ট্রাভেল কোম্পানির ফোন নম্বর, ওখানকার স্থানীয় জরুরি সেবা নম্বর, বিমান সংস্থা ও দূতাবাসের ফোন নম্বর লিখে সঙ্গে রাখার চেষ্টা করুন।

 

ভ্রমণের আগে যে গন্তব্যগুলোয় যাবেন, সে সম্পর্কে বিস্তারিত খোঁজখবর নিন। সেখানে যোগাযোগের মাধ্যম, স্থানীয় সংস্কৃতি, খাবার, ভাষা তথা গন্তব্যের প্রতিটি বিষয়ের সঙ্গে নিজেকে পরিচিত করে নিন। ওখানকার ভাষা না জানলে কমন কয়েকটি বাক্য লিখে নিয়ে যেতে পারেন। অন্তত দু-একটা কথা বলে যেন আপনি সহজেই আপনার গন্তব্যে পৌঁছাতে পারেন। অচেনা শহরে পৌঁছানোর পর আপনি বিমানবন্দর, রেলস্টেশন বা বাসস্ট্যান্ডের আশপাশে থাকার চিন্তা করুন, বিশেষ করে যদি গভীর রাতে পৌঁছান।


এ জাতীয় আরো খবর