শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী ২১, ২০২০

চট্টগ্রামে রিহ্যাব মেলায় রেডি ফ্ল্যাটেই গ্রাহকদের আস্থা

  • Abashan
  • ২০২০-০২-১০ ১৩:৩০:২০
image

রোববার চট্টগ্রামের রেডিসন ব্লু হোটেলে শেষ হয় চারদিন ব্যাপী রিহ্যাব চট্টগ্রাম ফেয়ার। এবারের মেলায় ৫৫টি কোম্পানির ৭৩টি স্টল অংশ নেয়। চট্টগ্রামের রেডিসন ব্লু হোটেলে রিহ্যাব ফেয়ারে দর্শকদের ভিড়। ছবি: দ্য বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড রিহ্যাব চট্টগ্রাম ফেয়ারে রেডি ফ্ল্যাট বিক্রি হয়েছে সবচেয়ে বেশি। বিগত দিনে সময় মতো ফ্ল্যাট বুঝে না পাওয়া ও হয়রানির কারণে এবারের মেলায় গ্রাহকদের পছন্দের তালিকায় ছিল রেডি ফ্ল্যাট। মেলায় প্রকল্প সম্পর্কে ধারণা নিয়ে সরেজমিন পরিদর্শন শেষে মেলাতেই ফ্ল্যাট বুকিং দিয়েছেন গ্রাহকরা। মেলার বিক্রি এবং সার্বিক আয়োজন নিয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন মেলায় অংশ নেওয়া ডেভেলপার কোম্পানিগুলো।

 

রোববার চট্টগ্রামের রেডিসন ব্লু হোটেলে শেষ হয় চারদিন ব্যাপী রিহ্যাব চট্টগ্রাম ফেয়ার। এবারের মেলায় ৫৫টি কোম্পানির ৭৩টি স্টল অংশ নেয়। এএনজেড প্রপার্টিজ লিমিটেডের প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা (সিওও) মাহমুদুল হক জানান, ‘‘এবারের মেলায় গ্রাহকরা রেডি ফ্ল্যাটের দিকে বেশি আগ্রহ দেখিয়েছেন। মেলায় আমরা পাঁচটি ফ্ল্যাট বিক্রি করেছি, যার মূল্য প্রায় আট কোটি টাকা। আরও ছয়টি ফ্ল্যাট বিক্রির কমিটমেন্ট পেয়েছি।’’

 

‘‘সময়মতো ফ্ল্যাট বুঝিয়ে না দেওয়া এবং প্রতারণার কারণে অসম্পূর্ণ ফ্ল্যাটের বিষয়ে গ্রাহকরা আস্থা রাখতে পারছেন না। এই ব্যবসাকে এগিয়ে নিতে ডেভেলপার কোম্পানিগুলোকে নিজস্ব মূলধন বিনিয়োগ আরও বাড়াতে হবে,’’ যোগ করেন মাহমুদুল হক।  লুসেন্ট ডেভেলপমেন্ট লিমিটেড এর ম্যানেজার (সেলস এন্ড মার্কেটিং) সাইফুদ্দিন মাহমুদ বাপ্পি বলেন, মেলায় আমরা দুইটি ফ্ল্যাট বিক্রি করেছি; যার মূল্য প্রায় দুই কোটি টাকা। আরও ১০টি ফ্ল্যাট বিক্রির কমিটমেন্ট পেয়েছি। মেলার সার্বিক আয়োজন নিয়ে আমাদের সন্তুষ্ট। 

 

ফ্ল্যাট কিনতে আসা ব্যবসায়ী রাকিবুল আহসান জানান, অনেক কোম্পানির রেডি ফ্ল্যাট আছে দেখে ভালো লাগছে। মেলায় এসে এক ছাদের নিচে অনেকগুলো প্রতিষ্ঠানের তথ্য জানতে পারছি। এতে পছন্দমতো ফ্ল্যাট কেনার সুযোগ থাকছে।  আগ্রাবাদ থেকে স্বপরিবারে মেলায় আসা প্রবাসী লোকমান হোসেন বলেন, ‘‘ফ্ল্যাটের দাম অপেক্ষাকৃত বেশি মনে হচ্ছে। তবুও দেখছি, সাধ্যের মধ্যে পছন্দের লোকেশনে নিতে পারি কি না।’’ 

 

মেলায় বিভিন্ন ডেভেলপার কোম্পানির পাশাপাশি ব্যাংক এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোও অংশ নেয়। সিটি ব্যাংকের আগ্রাবাদ শাখার অ্যাসিসটেন্ট ম্যানেজার শাহানুল ইসলাম বলেন, ফ্ল্যাট কেনার সঙ্গে ব্যাংক ঋণের যোগসূত্র রয়েছে। তাই ফ্ল্যাট কিনতে আসা গ্রাহকরা ব্যাংক ঋণের তথ্য জানতে এসেছেন। মেলা উপলক্ষে আমরা গৃহ ঋণের সুদ ০.৪% ছাড় দিয়েছি। 

 

মেলার আয়োজক রিহ্যাবের সহ-সভাপতি এবং চট্টগ্রাম রিজিয়নের চেয়ারম্যান আবদুল কৈয়ূম চৌধুরী বলেন, মেলায় আমাদের বিক্রির টার্গেট ছিল ৪৫০ কোটি টাকা। শেষ দিন পর্যন্ত লক্ষমাত্রা অনুযায়ী ফ্ল্যাট বিক্রি হয়েছে। 


এ জাতীয় আরো খবর