শনিবার, আগস্ট ৮, ২০২০

অ্যাপলের ব্যবসায় দীর্ঘমেয়াদি প্রভাব পড়বে

  • Abashan
  • ২০২০-০১-৩০ ১২:৩৭:৫২
image

চীনে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা শতাধিক ছাড়িয়েছে এবং আক্রান্তের সংখ্যা চার হাজার ছাড়িয়েছে। ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে বিশ্বব্যাপী ব্যাপক সতর্কতা জারি করা হয়েছে। ভাইরাসটি এমন সময় ছড়িয়েছে, যখন চীনে নববর্ষ পালিত হচ্ছে। চাইনিজ নববর্ষ পালনের জন্য তাইওয়ানে থাকা কর্মচারীদের চীনের উহান প্লান্টে ফিরে না আসতে সতর্ক করেছে অ্যাপলের প্রধান চুক্তিভিত্তিক পণ্য সরবরাহকারী ফক্সকন। যে কারণে অ্যাপলের ডিভাইস ব্যবসায় দীর্ঘমেয়াদি প্রভাব পড়বে বলে মনে করা হচ্ছে। খবর হিন্দুস্তান টাইমস।

 

তাইওয়ানভিত্তিক ফক্সকন অ্যাপলের প্রধান চুক্তিভিত্তিক পণ্য সরবরাহকারী। প্রতিষ্ঠানটি চীনের উহান কারখানায় আইফোনসহ অ্যাপলের আরো কিছু ডিভাইস সংযোজনের কাজ করে আসছে। তবে কর্মীদের উহানে ফিরতে না করায় আইফোনসহ অ্যাপলের অন্যান্য ডিভাইস উৎপাদন স্থবির হয়ে পড়বে। ফলে চলতি বছরের প্রথমার্ধে আইফোন উৎপাদন ১০ শতাংশ বাড়ানোর যে পরিকল্পনা করা হয়েছিল, তা বাধার মুখে পড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

 

অ্যাপল ইনসাইডারের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, উহানে দ্রুত ছড়িয়ে পড়া ভাইরাসটিতে কর্মচারীদের অহেতুক ঝুঁকির মধ্যে ফেলাটা ফক্সকনের জন্য খুব একটা সুবিধার হবে না। করোনাভাইরাস আতঙ্কে ফক্সকন যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তা ইতিবাচক। তবে এ সিদ্ধান্তে অ্যাপল ডিভাইস উৎপাদনে দীর্ঘমেয়াদি প্রভাব পড়বে, যা অ্যাপলের ডিভাইস ব্যবসা বিভাগের জন্য খুব একটা সুখকর হবে না।

 

ফক্সকনকে চলতি বছরের প্রথমার্ধে আট কোটি আইফোন উৎপাদনের নির্দেশ দিয়েছিল অ্যাপল। আগামী ফেব্রুয়ারিতেই বড় পরিসরে এ উৎপাদন শুরুর পরিকল্পনাও হাতে নিয়েছিল ফক্সকন।

 

চীনে অ্যাপলের কর্মী সংখ্যা ১০ হাজার এবং অ্যাপলের ৯০ শতাংশ পণ্যই চীনে সংযোজন করা হয়। কাজেই করোনাভাইরাসের কারণে উৎপাদন ব্যাহত হওয়ায় ডিভাইস বিক্রিতে প্রভাব ফেলবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।


এ জাতীয় আরো খবর